ভান্ডারিয়া এক রাতে ৪টি চুরি ; চোর আতঙ্কে এলাকাবাসী

নিজস্ব প্রতিনিধি | পিরোজপুরের ভান্ডারিয়ার একই রাতে চারটি চুরির ঘটনা ঘটেছে। রোববার দিনগত গভীর রাতে পৌরশহরের লক্ষ্মিপুরা মহল্লা এবং উপজেলার উত্তর শিয়ালকাঠি গ্রামে পৃথক এ চুরি সংগঠতি হয়েছে ।

স্থানীয়দের সূত্রে জানাগেছে, রোববার দিনগত গভীর রাতে ভান্ডারিয়া পৌর শহরের লক্ষ্মীপুরা গ্রামের ব্যবসায়ী দেলোয়ার হোসেন বেপারী তালাবদ্ধ ঘরের তালা ও গ্রিল ভেঙে অজ্ঞাত একদল চোর ঘরের সমস্ত মালামাল নির্বঘ্নে নিয়ে যায়। এসময় দেলোয়ার হোসেন বেপারী অসুস্থতার জন্য চিকিৎসাজনিত কারনে পরিবার নিয়ে ঢাকায় অবস্থান করছিলেন।
ক্ষতিগ্রস্ত ব্যবসায়ি দেলোয়ার হোসেন বেপারীর ছেলে সজিব বেপারী জানান, তালবদ্ধ ঘরে ঢুকে চোরের দল ১০ভরি স্বর্ণালংকার, দুটি এলইডি টিভি, একটি পালসার মোটরসাইকেলসহ জমির গুরুত্বপূর্ণ দলিল দস্তাবেজ নিয়ে যায়। এছাড়া একই রাতে একই গ্রামের মো. হারেচ বিশ্বাসের তালাবদ্ধ ঘরে সিঁদ কেটে প্রবেশ করে অজ্ঞাত চোরেরা স্বর্ণলংকারসহ মূল্যবান মালামাল চুরি করে নিয়ে যায়।
এদিকে একইরাতে উপজেলার শিয়াকাঠি গ্রামের কৃষক ওহাব হাওলাদারের একটি দুধের গাই গোয়ালঘর থেকে চুরি করে নিয়ে যায় অজ্ঞাত চোরেরা। উত্তর শিয়ালকাঠি গ্রামের বালু ব্যবসায়ি কবির হাওলাদার এর ষ্টিলবডি দুটি ট্রলার তার বাড়ি সংলগ্ন বাঞ্চার খাল থেকে চুরি হয়েছে বলে জানাগেছে।
অপরদিকে গত ৮ এপ্রিল সন্ধ্যায় সোমবার রাত আনুমানিক ৯টার দিকে শহরের লক্ষিপুরা মহল্লার আব্দুস ছালাম মুন্সীর বাড়ীতে এক দুর্ধর্ষ চুরি সংঘটিত হয়। চোরেরা গৃহের দরজার হ্যাজবল ভেঙে ভেতরে প্রবেশ করে স্বর্ণালঙ্কার এবং ২ লক্ষ ৫০ হাজার টাকার পূবালী ব্যাংকের এফডিআর (চেক)সহ মূল্যবান কাগজ পত্র নিয়ে যায় এবং বাড়ী সকল মালামাল তছনছ করে, তবে এসময় ওই গৃহের সদস্যরা বাড়ীতে ছিলেন না।
পৌর শহরে পর পর কয়েকটি বাড়ীতে চুরি হওয়ায় চোর আতঙ্কে ভুগছে এলকাবাসী, চোর আতঙ্কে রাতের ঘুম হারাম হয়ে গেছে বলে এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে ভা-ারিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ মো. শাহাবুদ্দীন বলেন, ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। বাড়ীর মালিকরা এলাকায় না থাকায় কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

তথ্য সুত্র: পিরোজপুর টাইমস।