রাজাপুরে এক কিলোমিটার সড়কে দেড় শতাধিক পরিবারের ভোগান্তি

মো. নাঈম ঝালকাঠি প্রতিনিধি

 

ঝালকাঠির রাজাপুরের মঠবাড়ি ইউনিয়নের বাদুরতলা গ্রামের পশ্চিম বাদুরতলা এলাকার মোঃ ইউসুফ আলি হাওলাদারের বাড়ির সামনা থেকে গুদিকাটা নামক এলাকা পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার ভাঙ্গাচোরা মাটির রাস্তায় স্থানীয় প্রায় দেড়শতাধিক পরিবার যুগ যুগ ধরে চলাচলে ভোগান্তির শিকার হয়ে আসছেন। স্থানীয় বারেক শিকদার, মজিবার খান, ইউসুফ আলি হাওলাদার মোয়াজ্জেম শিকদারসহ একাধিক এলাকাবাসি অভিযোগ করে বলেন, রাস্তাটির বেহাল অবস্থা হওয়ায় বৃষ্টির মৌসুমে চরম ভোগান্তির শিকার হতে হচ্ছে এলাকা বাসির। ওই সড়কে দুটি কালভার্ট রয়েছে যাহা দীর্ঘদিন আগে ভেঙ্গে গিয়েছে। রাস্তাটি খালের তীরে অবস্থিত হওয়ায় কয়েকটি স্থানে ভেঙ্গে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। ওই সড়কটি দিয়ে এলাকাবাসিসহ মঠবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় বাদুরতলা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক শিক্ষার্থীরা চলাচল করে। এছাড়াও উপজেলার উত্তমপুর, বদনীকাঠি, মঠবাড়ি গ্রাম বাদুরতলা বাজারের লোকজন অতি কষ্টে চলাচল করছে। এবিষয়ে স্থানীয় বর্তমান ইউপি সদস্য মোঃ মাহাতাব হাওলাদার বলেন, সড়কটি মঠবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের দক্ষিন পাশের খালের দক্ষিন পারে অবস্থিত। ওই পরিষদের সামনাদিয়ে খালের উপরে পারাপারের কাঠের পুলটি ভেঙ্গে যাওয়ায় ওই স্থানে একটি ব্রীজ নির্মানের চেষ্টা চলছে। ব্রীজ নির্মানের পরে ওই সড়কটি নির্মান করা হবে। তিনি আরো বলেন, স্থানীয় সাবেক মেম্বর মোস্তাফিজুর রহমান গত চার বছর আগে ওই সড়কে একশত গজের মতো স্থানে ইটের সোলিং করেছিলো তাও ভেঙ্গেচুরে শেষ হয়ে গেছে। এবিষয়ে মঠবাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ জালাল আহম্মেদ বলেন, আমিতো নবনির্বাচিত। এখনও কার্যক্রম শুরু করতে পারিনি। তবে ভবিষ্যতে সড়কটি নির্মান করা হবে