মঠবাড়িয়ায় নারীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম

বিশেষ প্রতিনিধি :  সুপারী পরাকে কেন্দ্র করে পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় নাসিমা বেগম (৪৬) নামে এক নারীকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। সোমবার বিকেলে উপজেলার দক্ষিণ কবুতরখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত নাসিমা বেগম ওই গ্রামের আলকাজ মল্লিকের স্ত্রী।

আহত ওই নারীর ছেলে রবিউল ইসলাম জানান, সোমাবার বিকেলে তার মা নাসিমা বেগম তাদের নিজ বাগানের সুপারী পারাতে যায়। এসময় প্রতিবেশী মৃত. হাফেজ মাস্টারের ছেলে মিজান মল্লিক, স্ত্রী ফরিদা বেগম, মেয়ে সেলিনা আক্তার ও জাহাঙ্গীর খায়ের ছেলে সুমন, মাসুম, স্ত্রী মানসুরা বেগম ওই জমি তাদের সীমানা দাবী করে এলোপাথারী পিটিয়ে ও ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর জখম করে। সে (রবিউল) রাতে বাড়িতে এসে তার মাকে আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। তিনি আরও জনান স্থানীয় চেয়ারম্যান ও মেম্বর জমি সংক্রান্ত বিষয়টি অনেক আগেই ফয়সালা করে দিয়েছেন। কিন্তু প্রতিপক্ষরা শালিশ ব্যবস্থা মানছে না।

এ ব্যপারে মিজান মল্লিক বলেন, নির্বাচনে আমারা মেম্বরকে সমর্থন করিনি বিধায় মেম্বর আমাদের বিরোধীতা করছে। তারা আমাদের সীমানার সুপারি পেরে নেয়ার প্রতিবাদ করলে আমাদের পক্ষের কয়েক জনকে আহত করে।

মঠবাড়িযা থানার ওসি মুহা. নূরুল ইসলাম বাদল বলেন, লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।