ইন্দুরকানীতে সাংবাদিকের উপর ইট ভাটা মালিকের হামলা

পিরোজপুরের ইন্দুরকানী উপজেলায়দৈনিক আমাদের সময়পত্রিকার উপজেলা প্রতিনিধি মো: মারুফুল ইসলামের উপর স্থাণীয় ইট ভাটা মালিক কর্তৃক হামলার শিকার হয়েছেন।

হামলার শিকার সাংবাদিক মারুফুল আজ দুপুরে জানান, মঙ্গলবার রাতে ইন্দুরকানী বাজারে অভিযুক্তরা আমাকে মারধরের পরে হত্যার হুমকী দেয়। ঘটনায় মারুফুল ইসলাম থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

দায়ের হওয়া অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, স্থাণীয় মো. সাইদুর রহমান সাইদ হাওলাদারের অবৈধ ইটের ভাটা রয়েছে। তার ওই ইটের ভাটার উপর একটি সংবাদ সংগ্রহের জন্য সাংবাদিক মারুফুল ইসলাম সেখানে যায়। খবর ভাটার মালিক সাইদুর রহমান জানতে পারেন। ওই দিন রাত ৮টার দিকে সাইদুর রহমান, মারুফুল ইসলামকে ইন্দুরকানী বাজারের জৈনিক শুভ হেমিওপ্যাথ দোকানের সামনে দেখতে পান।

সেখানে সাংবাদিক মারুফুলকে দেখতে পেয়ে প্রথমে হুমকি পরে চর থাপ্পর কিল-ঘুষি দেয়। এতে তার শরীরে নীলা ফুলা জখম সৃষ্টি হয়। সময় সাংবাদিক মারুফুলের ডাক চিৎকারে স্থাণীয়রা এগিয়ে গিয়ে তাকে উদ্ধার করেন।

ব্যাপারে উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড এম মতিউর রহমান জানান, অভিযুক্ত সাইদুর রহমান একজন দুর্ধর্ষ ক্যাডার প্রকৃতির লোক। তার বিরুদ্ধে এমন একাধীক অভিযোগ রয়েছে। সাইদুর রহমান গত প্রায় বছর আগে তার ওই ইট ভাটার শ্রমিক মাসুম (২৫) হত্যা মামলার প্রধান আসামী। এছাড়া তিনি উপজেলা লীগ এর সভাপতি সাবেক সাধারন সম্পাদক মনিরুজ্জামান মৃধা, সদর ইউনিয়ন লীগ সাধারন সম্পাদক মো. আজিজ হাওলাদারকে মারধরসহ তার বিরুদ্ধে এলাকায় একাধীক সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের অভিযোগ রয়েছে।

বিষয়ে অভিযুক্ত সাইদুর রহমানের সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি বলেন, বিষয়টি ভুল বুঝাবুঝি হয়েছে। পরে তা স্থাণীয়ভাবে মিমাংশা করা হয়েছে।

ইন্দুরকানী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. হুমায়ুন কবির এই অভিযোগের সত্যতা স্বীকার করে জানান, আমরা অভিযোগ পেয়েছি। ব্যাপারে আইনী ব্যাবস্থা গ্রহনের বিষয় প্রক্রিয়াধীন

তথ্য সুত্রঃ পিরোজপুর সময়।