প্রথম ধাপে বরিশাল বিভাগের যে সব ইউনিয়নে ইউপি নির্বাচন

প্রথম ধাপে ২৬ জেলার চার শতাধিক ইউনিয়ন পরিষদে (ইউপি) ভোটগ্রহণের পরিকল্পনা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। এসব জেলার ৪৭৯টি ইউপির তালিকাও তৈরি করেছে। এগুলোতে আগামী মার্চের প্রথম সপ্তাহে তফসিল ও ৭ এপ্রিল ভোটগ্রহণ হতে পারে। তবে সংশ্লিষ্ট এলাকায় ভোটার তালিকার সিডি তৈরির সক্ষমতার ওপর নির্ভর করছে কত সংখ্যক ইউনিয়ন পরিষদে ভোট হবে।

বিষয়টি নিয়ে ১৭ ফেব্রুয়ারী বুধবার বৈঠকে বসছেন নির্বাচন কমিশনাররা। এই সভায় কতটি ইউনিয়ন পরিষদে প্রথম ধাপে ভোট হবে সে বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত আসতে পারে। ইসি সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে নির্বাচন কমিশন সচিব মো. হুমায়ুন কবীর খোন্দকার  বলেন, কত সংখ্যক ইউনিয়ন পরিষদে নির্বাচন করা হবে তা নিয়ে কমিশন সভায় আলোচনা করা হবে। কমিশন যেভাবে সিদ্ধান্ত দেবে, সেই অনুযায়ী বাস্তবায়ন করা হবে।

প্রথম ধাপে কমবেশি চারশ ইউপিতে প্রথম ধাপে ভোটগ্রহণের সিদ্ধান্ত হতে পারে। এক্ষেত্রে বরিশাল বিভাগসহ উপকূলীয় এলাকা প্রাধান্য দেওয়া হবে। বর্ষা মৌসুমে উপকূলীয় এলাকায় ভোটকেন্দ্রে মালামাল পরিবহন কষ্টকর হয়ে পড়ে।

প্রথম ধাপে বরিশাল বিভাগের যেসব জেলা : জানা গেছে, যেসব ইউনিয়ন পরিষদের মেয়াদ আগামী ৩০ মে পর্যন্ত রয়েছে সেগুলোকে প্রথম ধাপের তালিকায় রাখা হয়েছে। এগুলো হচ্ছে- পটুয়াখালীর দুমকী উপজেলার তিনটি, বাউফলের ছয়টি, দশমিনার তিনটি ও গলাচিপার ছয়টি ইউপি। বরিশাল সদর উপজেলার ৮টি, বাকেরগঞ্জের ১১টি, উজিরপুরের ৬টি, মুলাদীর ৬টি, মেহেন্দিগঞ্জের ৫টি, বাবুগঞ্জের ৪টি, গৌরনদীর ৭টি, হিজলার ৪টি, আগৈলঝাড়ার ৬টি ও বানারীপাড়ার ৭টি। বরগুনার সদরের ৯টি, আমতলীর ৬টি, বেতাগীর ৭টি, বামনার ৪টি ও পাথরঘাটার ৭টি। পিরোজপুরের সদরের ৪টি, ভান্ডারিয়ার ৫টি, ইন্দুরকানির একটি, মঠবাড়িয়ার ৬টি, নেছারাবাদের ১০টি, কাউখালীর ২টি ও নাজিরপুরের ৪টি। ঝালকাঠি সদরের ৯টি, নলছিটির ১০টি, রাজাপুরের ৬টি ও কাঁঠালিয়ার ৬টি। ভোলা সদরের ২টি, দৌলতখানের ৫টি, বোরহানউদ্দিনের ২টি, তজুমদ্দিনের ৩টি ও চরফ্যাশনের ৭টি।