ভালো থেকে ভালোবাসা তোমার প্রেমিকদের নিয়ে ফেসবুকে ষ্টাটাস দিয়ে চিকৎসকের আত্মহত্যা

একাধিক পুরুষের সঙ্গে স্ত্রীর অনৈতিক সম্পর্কের কথা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছবি সহ স্ট্যাটাস দিয়ে জানান চট্টগ্রামের চিকিৎসক মোস্তফা মোরশেদ আকাশ (৩২) এর পর অভিমানে নিজের শরীরে নিজেই ইনজেকশন পুশ করেআত্মহত্যাকরেন। গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে নগরীর চান্দগাঁও আবাসিক এলাকায় নিজ বাড়ি থেকে ওই চিকিৎসকের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের অ্যানেসথেশিয়া বিভাগের চিকিৎসকের বাড়ি চন্দনাইশ উপজেলার বরকল এলাকায়। বাবা মৃত আবদুস সবুর। পরিবার সূত্রে জানা গেছে, আকাশের স্ত্রীর আমেরিকা প্রবাসী। গত সেপ্টেম্বরে একবার দেশে আসার পর তিনি আবার বিদেশে চলে যান। কিছুদিন আগে আবারও দেশে আসেন। চট্টগ্রাম নগরীর চান্দগাঁও আবাসিক এলাকার নম্বর সড়কের ২০ নম্বর বাড়িতে আকাশদের সপরিবারে বসবাস

চমেক পুলিশ ফাঁড়ির উপসহকারী পরিদর্শক (এএসআই) আলাউদ্দিন তালুকদার জানান, বুধবার রাতে হাসপাতালের ১৩ নম্বর ওয়ার্ডে দায়িত্ব পালন করেন আকাশ। তবে বৃহস্পতিবার ভোর সোয়া ৬টার দিকে তাকে হাসপাতালে নিয়ে আসেন ভাই নেওয়াজ মোরশেদ। সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন

চান্দগাঁও থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবুল বাশার জানান, চিকিৎসক আকাশের ফেসবুক ওয়াল থেকে দেখা যায়, তিনি ভোর ৫টার দিকে দুটি স্ট্যাটাস দেন। প্রথম স্ট্যাটাসে তার স্ত্রীর সঙ্গে ২০০৯ সালে পরিচয় থেকে শুরু করে ২০১৬ সালে তাদের বিয়ের কথা লিখেন। স্ট্যাটাসের একপর্যায়ে তিনি স্ত্রীকেচিটারবা প্রতারক হিসেবে উল্লেখ করেন। ছাড়া শেষ স্ট্যাটাসে আকাশ নিজের সঙ্গে স্ত্রীর ছবির পাশাপাশি একাধিক ছেলের সঙ্গেও তার স্ত্রীর ছবি আপলোড করেন

ওসি বলেন, ‘প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছিÑ স্ত্রীর সঙ্গে বুধবার রাতে ঝগড়া করেন আকাশ। বৃহস্পতিবার ভোররাতে স্ত্রী রাগ করে বাসা থেকে বেরিয়ে যান। এর পর আকাশ ফেসবুকে স্ট্যাটাসগুলো দেন। সেই সঙ্গে নিজেই নিজের শরীরে ইনজেকশন পুশ করে বিষপ্রয়োগ করেন।তবে গতকাল রাত পর্যন্ত ঘটনায় থানায় কোনো মামলা হয়নি বলে জানান ওসি বাশার

চিকিৎসক আকাশের সুসাইড নোটের অংশ : ...আমি বারবার বলছিÑ আমাকে ভাল না লাগলে ছেড়ে দাও। কিন্তু চিট কর না, মিথ্যা বল না। আমার ভালবাসা সবসময় ওর জন্য শতভাগ ছিল। আমি আর সহ্য করতে পারিনি। আমাদের দেশে তো ভালবাসায় চিটিং-এর শাস্তি নেই। তাই আমিই বিচার করলাম আর আমি চিরশান্তির পথ বেছে নিলাম। তোমাদেরও (অন্য প্রেমিক-প্রেমিকা) বলছি কাউকে আর ভাল না লাগলে সুন্দরভাবে আলাদা হয়ে যাও চিট কর না, মিথ্যা বল না

... মা, তুমি মাফ করে দিও। তোমার স্বপ্নপূরণ করতে পারলাম না। মায়ের ভালবাসার কখনো তুলনা চলে না। ...আমার মৃত্যুর জন্য দায়ী আমার বউ। যাকে গত নয়টা বছর শতভাগ ভালোবেসেছি। ...ওর মা-বাবা আমাকে মানসিক কষ্ট দিয়ে মারছে। আমি এই বেইমানি মেনে নিতে পারি নাই। তারপরও সব ভুলে আমি সুন্দর সংসার করতে চাইছি। আমার শাশুড়ি-শ্বশুর আর বউ নামের কলঙ্ক তা করতে দিল না। আমাকে প্রতিনিয়ত প্রেশার দিয়ে গেছে...