কাউখালীতে প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাসহ ৭টি পদ শূন্য !

কাউখালী প্রতিনিধি > পিরোজপুর জেলার কাউখালী উপজেলার প্রাণিসম্পদ অফিসের ১১টি পদের মধ্যে উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাসহ ৭টি পদ দীর্ঘদিন শূণ্য । ফলে জনবল সংকটে গবাদি পশুর চিকিৎসাসেবা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। ভারপ্রাপ্ত হিসেবে একজন ভেটিনারী সার্জন প্রাণি সম্পদ দপ্তরের দায়িত্ব পালন করছেন। সংশ্লিষ্ট দপ্তর সূত্রে জানাগেছে,২০১২ সালের ১৪ই এপ্রিল প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. মো. সেলিম উল্লাহ্ বদলী হয়ে যাওয়ার পর অদ্যবধি এই গুরুত্বপূর্ণ পদটি শূণ্য রয়েছে। এ দপ্তরে ১১টি পদ থাকলেও বর্তমানে কর্মরত আছে মাত্র ৪ জন।া প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা, উপজেলা প্রাণিসম্পদ সহকারী, ভিএফএ, কৃত্তিম প্রজননকারী কর্মকর্তা, অফিস সহকারী , ড্রেসার , ও এমএলএসএস পদ বছরের পর বছর ধরে শূণ্য। এছাড়া প্রয়োজনীয় উপকরণ, ওষুধ ও চিকিৎসকসহ জনবল সংকটের কারণে সরকারি সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন উপজেলার হাঁস-মুরগি, গরু মহিষ ছাগল, ভেড়া, কবুতর ও কোয়েল খামারের মালিকরা। এছাড়া ভবনটি ঝুঁকিপূর্ণ, ছাদ দিয়ে পানি পড়ে অফিসের মূল্যবান কাগজপত্র নষ্ট হচ্ছে । সীমানা প্রাচীর না থাকায় অবাধে গরু-ছাগল প্রবেশ আশপাশের পরিবেশ নষ্ট করছে। অফিসটি নিচু স্থানে হওয়ায় স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে সামান্য একটু বেশি পানি এলেই চারপাশ পানিতে তলিয়ে যায়। এ ব্যাপারে উপজেলা প্রাণিসম্পদ অফিসে কর্তব্যরত ভেটিনারী সার্জন ডা. শহিদুজ্জামান বলেন, জনবল সংকটের কারণে চিকিৎসা সেবায় সংকট চলছে। বিষয়টি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।