মঠবাড়িয়ায় বীর মুক্তিযোদ্ধাকে ঘর তুলতে বাঁধা ও হয়রানির অভিযোগ

মঠবাড়িয়া প্রতিনিধি : পিরোজপুরের মঠবাড়িয়ায় একটি বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে ঘর তুলতে বাঁধা ও বিভিন্ন দপ্তরে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানীর অভিযোগ পাওয়া গেছে। এর প্রতিকার চেয়ে ভুক্তভোগী বীর মুক্তিযোদ্ধা মোয়াজ্জেম হোসেন মঙ্গলবার দুপুরে মঠবাড়িয়া প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। লিখিত বক্তব্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, তিনি ২০০৯ ও ২০১০ সালে মিরুখালী বাজারের দক্ষিণ পাশে নাপিতখালী মৌজায় গণেশ চন্দ্র হাওলাদার, তোফাজ্জেল হাওলাদার ও মুজাহার হাওলাদারের কাছ থেকে ১.৬১ একর জমি সাব-কবলা মূলে ক্রয় করে ভোগ দখল করে আসছেন। ওই জমিতে তার ছেলের জন্য সম্প্রতি বসত ঘর তুলতে গেলে একই এলাকার রমনী বেপারীর ছেলে শুভ বেপারী ও তার লোকজন ঘর তুলতে বাঁধা দেয় । এছাড়া তাঁর প্রায় লক্ষাধিক টাকার গাছ জোর পূর্বক কেঁটে নিয়ে যায়। এ বিষয়ে বিজ্ঞ আদালতে মামলা করা হয়েছে। মোয়াজ্জেম হোসেন আরো বলেন, তিনি উপজেলার মিরুখালী ইউনিয়নের দুই বারের নির্বাচিত ৫নং ওয়ার্ডের সদস্য। তার প্রতিদ্বন্ধি রাজনৈতিক গ্রæপের ইন্দনে প্রতিপক্ষরা বিভিন্ন দপ্তরে মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে হয়রানী করে আসছে। তিনি ন্যায় বিচারের জন্য প্রশাসনের পদক্ষেপ হস্তক্ষেপ কামনা করেন। সংবাদ সম্মেলনে সমাজ সেবক মোঃ মজিবর রহমান ফরাজী, দলিল লেখক জমাদ্দার সিদ্দিক ও বীর মুক্তিযোদ্ধার ছোট ছেলে মোঃ নুরুল হুদা আলীম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। এ ব্যপারে অভিযুক্ত শুভ বেপারীর মুঠোফোনে একাধিকবার কথা বলার চেষ্টা করেও তিনি কল রিসিভ করেন নি।